রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) কর্তৃক বক্স খাটের ভিতরে রক্ষিত অবস্থায় বসুন্ধরা ব্যান্ডের টিসিবি পণ্য ১২৩৮ লিটার সয়াবিন তেল উদ্ধার করা হয়। এ সময় দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

বুধবার (১৫ এপ্রিল) রাত পৌনে এগারোটার দিকে নগরীর মধ্য পার্বতীপুর এলাকার হানিফ মিয়ার বাড়ি থেকে টিসিবির ন্যায্যমূল্যের ১ হাজার ২৩৮ লিটার ভোজ্যতেল উদ্ধার করা হয়

বিষয়টি নিশ্চিত করেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি এন্ড মিডিয়া) উত্তম প্রসাদ পাঠক।

তিনি জানান, বুধবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নগরীর ১৭নং ওয়ার্ডের মধ্য পার্বতীপুর ঈদগামাঠ সংলগ্ন এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালায় ডিবি পুলিশ। ওই বাসার ভিতরে অভিনব কায়দায় বক্স খাটের ভিতরে রাখা টিসিবির ২ লিটার তেলের ২৫৯টি এবং ৫ লিটারের ১৪৪টি বোতল উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার হওয়া ১২৩৮ লিটার সয়াবিন তেলের আনুমানিক মূল্য ৯৯ হাজার ৪০ টাকা। এসময় বাসার মালিক হানিফ মিয়াকে (৫৮) ও মালামাল সরবরাহকারী লাল মিয়াকে (৫২) আটক করে পুলিশ।

আটক ব্যক্তিরা অবৈধ লাভের জন্য বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে টিসিবির ডিলারদের কাছ থেকে এসব পণ্য কম দামে ক্রয় করে মজুদ করে রেখেছিলেন। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানান উত্তম প্রসাদ পাঠক।

এদিকে সরকারি পণ্য কালোবাজারে বিক্রির সাথে অন্য কেউ জড়িত রয়েছে কিনা, তা অনুসন্ধান করতে আটকদের সাথে নিয়ে রাতে আরও অভিযান চালানো হবে বলে জানান মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ ওয়াহিদ।

সম্প্রতি সারা বিশ্বে ছড়ানো মরণব্যাধি করোনা ভাইরাসে বিপর্যস্ত গরিব-দুঃখী মানুষের জন্য সরকার প্রদত্ত টিসিবি পণ্য ন্যায্য মূল্যে বিক্রয়ের জন্য বলা হলেও কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ী যারা অবৈধ লাভের উদ্দেশ্যে মজুদ করে তাদের বিরুদ্ধে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ এর গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)’র টিম এর অভিযান চলমান।

Share This Post