ক’রোনা ভা’ইরাস লকডাউনের সময় ভিসা নীতিমালা লঙ্ঘন করে ভারতে অবস্থান করায় বাংলাদেশিসহ তাবলীগের সাদ অনুসারী আড়াই হাজার সদস্যকে কালো তালিকাভুক্ত করেছে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়।
এই তালিকায় বাংলাদেশের ১১০ জন আচেন বলে জানা গেছে। আগামী ১০ বছর তারা ভারতে প্রবেশ করতে পারবেন না।

বৃহস্পতিবার ভারতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বিভিন্ন রাজ্য সরকার দেশজুড়ে মসজিদ এবং ধর্মীয় মাদ্রাসায় অবৈধভাবে বসবাসরত বিদেশিদের বিবরণ দেওয়ার পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এই পদক্ষেপ নিয়েছে।

সরকারি নির্দেশ উপেক্ষা করে দিল্লির নিজামুদ্দিন মরকাজে মাওলানা সাদের নেতৃত্বে তবলিগ জামাতের ধর্মীয় জমায়েতে যোগ দেওয়ার জেরেই এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

মাওলানা সাদ, তার ছেলে সহ অনেকেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের নজরে রয়েছে। এদের বিরুদ্ধে লকডাউন ভাঙার অভিযোগ রয়েছে। দিল্লিতে তবলিগ জামাতে হেডকোয়ার্টার নিজামুদ্দিন মার্কাজে এক বিশেষ জমায়েতে তারা যোগ দিয়েছিল। ওই ধর্মীয় জমায়েত থেকে একের পর এক করোনা আক্রান্তের সন্ধান মেলে।
এরপরই কেন্দ্রীয় সরকারের নজরে চলে আসে তারা। কালো তালিকায় বাংলাদেশসহ প্রায় ৪০টি দেশের নাগরিকরা রয়েছেন।

উল্লেখ্য দিল্লির ওই ধর্মীয় জমায়েতে যোগ দেওয়া শতাধিক তবলিগ জামাত সদস্যের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়। বিদেশ থেকে আসা সদস্যরা প্রত্যেকেই টুরিস্ট ভিসায় ভারতে এসেছিল বলে জানা গেছে।

Share This Post