লালমনিরহাট শহরে চুরির অভিযোগে মমিনুল ইসলাম (১৭) নামে এক কিশোরকে অমানবিকভাবে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।
এ ঘটনায় আশরাফ আলী লাল নামে এক ব্যবসায়ীকে মঙ্গলবার রাত দেড়টার দিকে আটক করেছে পুলিশ।

মমিনুল সদর উপজেলার মোগলহাট ইউনিয়নের ইটাপোতা গ্রামের নুর মোহাম্মদের ছেলে।
আটক আশরাফ আলী লাল আদিতমারী উপজেলার কমলবাড়ি ইউনিয়নের মৃত আহমদ আলীর ছেলে। তিনি জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক।

এর আগে শহরের মিশন মোড়ে তার মালিকানাধীন সীমান্ত শপিং কমপ্লেক্সের নিচতলায় নির্যাতনের এ ঘটনা ঘটে।
রাত ১০টার দিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভিডিওটি আপলোড করার পর তা দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়।

এদিকে ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওটিতে দেখা যায়, ব্যবসায়ী আশরাফ আলী লালসহ আরও দুই-তিনজন কিশোরটিকে বারবার মাটিতে ফেলে বেধড়ক মারধর এবং পা দিয়ে মুখ ও গলা চেপে ধরছেন। আত্মরক্ষায় ছেলেটি অনেকের পা জড়িয়ে ধরলেও কেউ রক্ষা করতে এগিয়ে আসেনি।

লালমনিরহাট সদর থানা পুলিশের ওসি মাহফুজ আলম জানান, ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর কিশোর মমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে মঙ্গলবার সদর থানায় মামলা করেছে। এর পর রাত দেড়টার দিকে প্রধান অভিযুক্ত আশরাফ আলী লালকে আটক করা হয়েছে।
এতে আশরাফ আলী লালসহ অজ্ঞাত আরও ৪-৫ জনকে আসামি করা হযেছে। গ্রেফতারকৃতকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হবে।

জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে ভবনের নিচে থাকা একটি ইজিবাইক থেকে তেলের একটি জারকিন চুরির অপরাধে ওই কিশোরকে প্রথমে আটক করে কয়েকজন।
পরে তাকে ভবন মালিক আশরাফ আলী লালের হাতে তুলে দেয়া হলে তিনিসহ কয়েকজন মধ্যযুগীয় কায়দায় কিশোরটিকে নির্যাতন করেন।

Share This Post