কথায় কথায় কাফের খেল দেখাতে উস্তাদ ছিল বিদআতি আহমদ রেজা খান বেরেলবী। সেই থেকে প্রচলিত মিলাদপন্থী বিদআতিরা কাফের কাফের খেলে অভ্যস্ত।

চরম বিদআতি এনায়েতুল্লাহ আব্বাসীও এর ব্যতিক্রম নয়। ওদের ডিপুতে কাফের ছাড়া আর কিছু নেই। এসব ফাউল লোকের চাপাবাজীর উদ্ভট দলীলের কোন জবাব দেবার মত প্রয়োজনও আমি বোধ করি না। এদের উপেক্ষা করাই এদের জন্য চরম জবাব বলে মনে করি।
নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের জন্ম বা মিলাদ কোন মানুষ অস্বিকার করে না।

মিলাদের নামে জশন করা বানোয়াট পদ্ধতির শামা গীত গাওয়া, জুলুস বের করা ইত্যাদিকে সওয়াবের কাজ মনে করা নিঃসন্দেহে বিদআত।

মাওলানা মামুনুল হক। হক ও হক্কানিয়্যাতের অতন্ত্র প্রহরী। তার বজ্রকণ্ঠের হুংকারে কেঁপে উঠে বাতিলের তখতে তাউস। প্রচলিত মিলাদের বিদআতি কর্মের বিরুদ্ধে তার বজ্র কঠিন হুংকারে মিলাদ ব্যবসার পয়সায় পেট চালানো মোল্লারা ক্ষিপ্ত হবে এটাই স্বাভাবিক।

চামচিকার ভেংচিতে সূর্যের কিছু হয় না। আব্বাসীর মত দুই টাকার মোল্লার ফাতওয়ায় থমকে যাবে না মামুনুল হকদের হকের আওয়াজ ইনশাআল্লাহ।

Share This Post