Spread the love

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর মহাসচিব, বেফাকুল মাদারিসের সিনিয়র সহসভাপতি ও হাইয়াতুল উলয়া বাংলাদেশ এর কো- চেয়ারম্যান আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী রহঃএর জানাযার নামাজ আজ সোমবার সকাল ৯ টায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে অনুষ্ঠিত হয়। লাখ লাখ জনতা জানাযায় অংশ গ্রহণ করেন। এর মধ্যে আলেমদের উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মত। মাদরাসার ছাত্র শিক্ষক, আলেম উলামাসহ সর্বস্তরের মুসল্লি উপস্থিতিত ছিলেন।

মসজিদ ও মসজিদ আঙ্গিনায় লোক সংকুলান না হওয়াতে বায়তুল মোকাররমের উত্তর দিকে পুরানা পল্টন পূর্ব দিকে ফকিরাপুল, মতিঝিল শাপলা চত্ত্বর পর্যন্ত, দক্ষিণ দিকে গুলিস্তান পর্যন্ত মুসল্লীরা রাস্তায় দাঁড়িয়ে তাদের প্রিয় রাহবারের জানাযায় অংশ গ্রহণ করে। কিন্তু পূর্ব দিকে যাওয়ার রাস্তাগুলো লোকে লোকারণ্য হয়ে ব্লক হয়ে যাওয়ায় মসজিদের পশ্চিম দিকে জিরো পয়েন্ট ও পল্টন মোড় পর্যন্ত লোকজন দাঁড়িয়ে থাকে।

জানাযার পূর্বে আল্লামা কাসেমীর স্মৃতিচারণ করে উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর আমীর শায়খুল হাদীস আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী, বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের সভাপতি ও হাইয়াতুল উলইয়ার চেয়ারম্যান শায়খুল হাদিস মাওলানা মাহমুদুল হাসান, হেফাজতে ইসলাম
বাংলাদেশ এর প্রধান উপদেষ্টা আল্লামা মুহিবুল্লাহ বাবুনগরী, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল্লামা শায়খ জিয়া উদ্দীন, দারুল উলুম দেওবন্দের মজলিসে শুরার সদস্য মুফতি শফিকুল ইসলাম কাসেমী, জামিযা মাদানিয়া বারিধারার ভারপ্রাপ্ত মুহতামিম হাফেজ মাওলানা নাজমুল হাসান, আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী রহঃএর ছোটভাই মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, বড় ছেলে মাওলানা জোবাযের। জানাযার নামাজ পড়ান আল্লামা কাসেমী রহঃ এর ছোট সাহেবজাদা মুফতি জাবের কাসেমী।

জানাযায উপস্থিত ছিলেন হেফাজতের সিনিয়র সহসভাপতি আল্লামা নুরুল ইসলাম জিহাদী, বেফাকের সহসভাপতি সাবেক মন্ত্রী আল্লামা মুফতি মোহাম্মদ ওয়াক্কাস, সাবেক এম,পি মুফতি শহিদুল ইসলাম,প্রবীন আলেমদ্বীন মাওলানা আবুল কালাম, নারায়নগঞ্জের মাওলানা আব্দুল আউয়াল, বেফাকের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক,সহ সভাপতি হাফেজ মাওলানা মুসলেহ উদ্দীন রাজু, খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড, আহমদ আব্দুল কাদের, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক, মুসলিম লীগের মহাসচিব এডভোকেট কাজী আবুল খয়ের, জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ এর নেতা মুজীবুর রহমান, লেবার পাটির চেয়ারম্যান জনাব মোস্তাফিজুর রহমান ইরান,হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী,

শীর্ষ উলামায়ে কেরামের মধ্যে মুফতি আব্দুল মালেক, মুফতি দিলাওয়ার হোছাইন, মাওলানা সালাহ উদ্দিন নানুপুরী, বাহাদুর পুরের পীর মাওলানা আব্দুল্লাহ হাসান, ড, মুফতী জহিরুল ইসলাম, ড, মাওলানা মুশতাক আহমদ, মুফতী মুহাম্মদ আলী, মাওলানা ইয়াহইয়া মাহমুদ,

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের নেতৃবৃন্দের মধ্য উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সহসভাপতি মাওলানা আব্দুর রব ইউসূফী, আল্লামা উবায়দুল্লাহ ফারুক, মাওলানা আব্দুল হামিদ পীর সাহে্ব মধুপুর, মাওলানা জোনায়েদ আল হাবীব, মাওলানা এখলাছুর রহমান, মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ সাদী, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, মাওলানা আবদুল বছীর, এডভোকেট মাওলানা শাহীনুর পাশা চৌধুরী, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা বাহাউদ্দীন যাকারিয়া, মাওলানা তাফাজ্জুল হক আজীজ, মাওলানা ফজলুল করীম কাসেমী, মুফতি মুনির হোছাইন কাসেমী, সহকারী মহাসচিব মুফতি মাসুদুল করীম মাওলানা খলিলুর রহমান, মাওলানা মুতীউর রহমান, মাওলানা আতাউর রহমান,মাওলানা জমিল আহমদ আনসারী,মাওলানা ছানাউল্লাহ মাহমুদী, অর্থ সম্পাদক মুফতি জাকির হোছাইন কাসেমী সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মুতিউর রহমান গাজীপুরী, মাওলানা বশীর আহমদ, মাওলানা কারী আবদুল হাফিজ শাহবাগী, মুফতী মাহবুবুল্লাহ, মাওলানা নাসির উদ্দীন মুনীর, মুফতী নাসির উদ্দীন খান,মাওলানা আফজাল রহমানী,প্রচার সম্পাদক মাওলানা জয়নুল আবেদীন,সাহিত্য সম্পাদক মাওলানা ফয়জুল হাসান খাদিমানী,দাওয়া বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা লোকমান মাজহারী, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুফতি আনোয়ার মাহমুদ,সহ প্রশিক্ষণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল জলীল ইউসূফী, কৃষি সম্পাদক মাওলানা জিয়াউল হক কাসেমী,তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা শরফ উদ্দীন ইয়াহইয়া ফাহিম,অফিস সম্পাদক মাওলানা আবদুল গফফার ছয়ঘরী, ঢাকা মহনগরীর নেতা মাওলানা হামিদ জাহেরী,মাওলানা বশিরুল ইসলাম খাদিমানী, মাওলানা মাহবুবুল আলম,মাওলানা নুর মোহাম্মদ কাসেমী,মাওলানা ছিদ্দিকুল ইসলাম তোফায়েল, যুব জমিয়তের সভাপতি মাওলানা তাহফিমুল হক, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ইসহাক কামাল,ছাত্র জমিয়তের সভাপতি এবং এখলাছুর রহমান রিয়াদ, সাধারণ সম্পাদক হাফেজ হুজাইফা ওমর প্রমুখ।

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর মহাসচিব, বেফাকুল মাদারিসের সিনিয়র সহসভাপতি ও হাইয়াতুল উলয়া বাংলাদেশ এর কো- চেয়ারম্যান আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী রহঃএর জানাযার নামাজ আজ সোমবার সকাল ৯ টায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে অনুষ্ঠিত হয়। লাখ লাখ জনতা জানাযায় অংশ গ্রহণ করেন। মসজিদ ও মসজিদ আঙ্গিনায় লোক সংকুলান না হওয়াতে বায়তুল মোকাররমের উত্তর দিকে পুরানা পল্টন পূর্ব দিকে ফকিরাপুল, মতিঝিল শাপলা চত্ত্বর পর্যন্ত, দক্ষিণ দিকে গুলিস্তান পর্যন্ত মুসল্লীরা রাস্তায় দাঁড়িয়ে তাদের প্রিয় রাহবারের জানাযায় অংশ গ্রহণ করে। কিন্তু পূর্ব দিকে যাওয়ার রাস্তাগুলো লোকে লোকারণ্য হয়ে ব্লক হয়ে যাওয়ায় মসজিদের পশ্চিম দিকে জিরো পয়েন্ট ও পল্টন মোড় পর্যন্ত লোকজন দাঁড়িয়ে থাকে।

জানাযার পূর্বে আল্লামা কাসেমীর স্মৃতিচারণ করে উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর আমীর শায়খুল হাদীস আল্লামা জোনায়েদ বাবুনগরী, বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের সভাপতি ও হাইয়াতুল উলইয়ার চেয়ারম্যান শায়খুল হাদিস মাওলানা মাহমুদুল হাসান, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর প্রধান উপদেষ্টা আল্লামা মুহিবুল্লাহ বাবুনগরী, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল্লামা শায়খ জিয়া উদ্দীন, দারুল উলুম দেওবন্দের মজলিসে শুরার সদস্য মুফতি শফিকুল ইসলাম কাসেমী, জামিযা মাদানিয়া বারিধারার ভারপ্রাপ্ত মুহতামিম হাফেজ মাওলানা নাজমুল হাসান, আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী রহঃএর ছোটভাই মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, বড় ছেলে মাওলানা জোবাযের।

জানাযার নামাজ পড়ান আল্লামা কাসেমী রহঃ এর ছোট সাহেবজাদা মুফতি জাবের কাসেমী। জানাযায উপস্থিত ছিলেন হেফাজতের সিনিয়র সহসভাপতি আল্লামা নুরুল ইসলাম জিহাদী, বেফাকের সহসভাপতি সাবেক মন্ত্রী আল্লামা মুফতি মোহাম্মদ ওয়াক্কাস, সাবেক এম,পি মুফতি শহিদুল ইসলাম,প্রবীন আলেমদ্বীন মাওলানা আবুল কালাম, নারায়নগঞ্জের মাওলানা আব্দুল আউয়াল, বেফাকের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক,সহ সভাপতি হাফেজ মাওলানা মুসলেহ উদ্দীন রাজু, খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড, আহমদ আব্দুল কাদের, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক, মুসলিম লীগের মহাসচিব এডভোকেট কাজী আবুল খয়ের, জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ এর নেতা মুজীবুর রহমান, লেবার পাটির চেয়ারম্যান জনাব মোস্তাফিজুর রহমান ইরান,হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী।

শীর্ষ উলামায়ে কেরামের মধ্যে মুফতি আব্দুল মালেক, মুফতি দিলাওয়ার হোছাইন, মাওলানা সালাহ উদ্দিন নানুপুরী, বাহাদুর পুরের পীর মাওলানা আব্দুল্লাহ হাসান, ড, মুফতী জহিরুল ইসলাম, ড, মাওলানা মুশতাক আহমদ, মুফতী মুহাম্মদ আলী, মাওলানা ইয়াহইয়া মাহমুদ,

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের নেতৃবৃন্দের মধ্য উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সহসভাপতি মাওলানা আব্দুর রব ইউসূফী, আল্লামা উবায়দুল্লাহ ফারুক, মাওলানা আব্দুল হামিদ পীর সাহে্ব মধুপুর, মাওলানা জোনায়েদ আল হাবীব, মাওলানা এখলাছুর রহমান, মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ সাদী, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, মাওলানা আবদুল বছীর, এডভোকেট মাওলানা শাহীনুর পাশা চৌধুরী, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা বাহাউদ্দীন যাকারিয়া, মাওলানা তাফাজ্জুল হক আজীজ, মাওলানা ফজলুল করীম কাসেমী, মুফতি মুনির হোছাইন কাসেমী, সহকারী মহাসচিব মুফতি মাসুদুল করীম মাওলানা খলিলুর রহমান, মাওলানা মুতীউর রহমান, মাওলানা আতাউর রহমান,মাওলানা জমিল আহমদ আনসারী,মাওলানা ছানাউল্লাহ মাহমুদী, অর্থ সম্পাদক মুফতি জাকির হোছাইন কাসেমী সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মুতিউর রহমান গাজীপুরী,

মাওলানা বশীর আহমদ, মাওলানা কারী আবদুল হাফিজ শাহবাগী, মুফতী মাহবুবুল্লাহ, মাওলানা নাসির উদ্দীন মুনীর, মুফতী নাসির উদ্দীন খান,মাওলানা আফজাল রহমানী,প্রচার সম্পাদক মাওলানা জয়নুল আবেদীন,সাহিত্য সম্পাদক মাওলানা ফয়জুল হাসান খাদিমানী,দাওয়া বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা লোকমান মাজহারী, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুফতি আনোয়ার মাহমুদ,সহ প্রশিক্ষণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল জলীল ইউসূফী, কৃষি সম্পাদক মাওলানা জিয়াউল হক কাসেমী,তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা শরফ উদ্দীন ইয়াহইয়া ফাহিম,অফিস সম্পাদক মাওলানা আবদুল গফফার ছয়ঘরী, ঢাকা মহনগরীর নেতা মাওলানা হামিদ জাহেরী,মাওলানা বশিরুল ইসলাম খাদিমানী, মাওলানা মাহবুবুল আলম,মাওলানা নুর মোহাম্মদ কাসেমী,মাওলানা ছিদ্দিকুল ইসলাম তোফায়েল, যুব জমিয়তের সভাপতি মাওলানা তাহফিমুল হক, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ইসহাক কামাল,ছাত্র জমিয়তের সভাপতি এবং এখলাছুর রহমান রিয়াদ, সাধারণ সম্পাদক হাফেজ হুজাইফা ওমর প্রমুখ।

Share This Post