Spread the love

ঋণে জর্জরিত এক কাশ্মীরি যুবক নিজের কিডনি বিক্রি করতে চাইছেন। কিডনি বিক্রির বিজ্ঞাপন দিয়েছেন পত্রিকার পাতায়। উক্ত বিজ্ঞাপনে সাবজার আহমেদ খান নামে ২৮ বছরের ওই কাশ্মীরি যুবক লিখেন, ‘নব্বই লাখ রুপির ঋণের বোঝা আমার মাথায়। এ অবস্থায় বিষয়টি বেআইনি জেনেও নিরুপায় হয়ে কিডনি বেচার বিজ্ঞাপনটি দিতে হয়েছে।’ এভাবে কিডনি বিক্রি করা ভারতে নিষিদ্ধ। এ ধরনের বিজ্ঞাপন প্রচারও আইন সম্মত নয়।

জানা যায়, শ্রীনগরভিত্তিক একটি কাশ্মীরি পত্রিকায় তিনি গত সোমবার কিডনি বিক্রির ওই বিজ্ঞাপন দেন। বিজ্ঞাপন দেখে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ৫ জন তার সঙ্গে কিডনি কেনার জন্য যোগাযোগ করেন বলে খবরে বলা হয়েছে। কাশ্মীরের দক্ষিণাঞ্চলীয় জেলা অনন্তনাগের নুসু গ্রামের বাসিন্দা সাবজার আহমেদ খান নির্মাণকাজের ঠিকাদার ছিলেন।

গত বছরের ৫ আগস্ট ভারতের সংবিধান থেকে ৩৭০ ধারা বাতিলের পর বিশেষ মর্যাদা রহিত করে কাশ্মীরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ঘোষণার পর থেকে কর্মসংস্থান হারিয়ে সাবজারের মত বহু যুবক মানবেতর জীবনযাপন করছেন। একদিকে রাজনৈতিক অচলাবস্থা অন্যদিকে লকডাউনের ফলে জীবনযাত্রা স্থবির হয়ে পড়েছে। এর ফলে তার ৯০ লাখ টাকা ঋণ হয়ে যায় সাবজারের।এসব কারণে দিশেহারা হয়ে তিনি শেষ পর্যন্ত কিডনি বেচার সিদ্ধান্ত নেন বলে তিনি গণমাধ্যমকে জানান।

Share This Post