Spread the love

ওয়াজ-মাহফিলকে “ধর্মব্যবসা” উল্লেখ করে কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলায় ওয়াজ-মাহফিল বন্ধ ঘোষণা করেছেন উপজেলা চেয়ারম্যান (অ.) মেজর মোহাম্মদ আলী।

উপজেলা চেয়ারম্যানের এই ঘোষণার পর ব্যাপারটি নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে জানা গেছে। অনেকেই এই সিদ্ধান্তের নিন্দা জানিয়ে সামাজিক মাধ্যমে সমালোচনাও করেছেন।

জানা গেছে, মেজর মোহাম্মদ আলীর বাবা সুবেদ আলী ভুঁইয়া একই থানার এমপি।

উপজেলা চেয়ারম্যান (অ.) মেজর মোহাম্মদ আলী তার ফেসবুক পোস্টে বক্তাদের ‘ধর্ম ব্যবসায়ী’ উল্লেখ করে বলেছেন প্রতি সপ্তাহে জুমার খুতবার পরে ওয়াজের কি প্রয়োজন? উদ্দেশ্য কি? কোরআন/হাদীসে ‘‘ওয়াজ’’ সম্পর্কে কোথায় আছে?

“ওয়াজ”, দেখা / শোনা / আয়োজন করা, সম্পূর্ণ হারাম উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, ‘ তারপর আবার হেলিকপ্টার দিয়ে লক্ষ টাকা ব্যয় করে হুজুর এনে (কোরআন শরীফে স্পষ্ট লেখা আছে, পারিশ্রমিক দেয়া/নেয়া নিষেধ) এই ওয়াজের কি প্রয়োজন? ওয়াজের আসল উদ্দেশ্য কি? বলে প্রশ্ন তোলেন তিনি।

ওয়াজ মাহফিলকে ‘ধর্ম ব্যবসা’ উল্লেখ্য করে তিনি আরো বলেন, ‘ আমার জীবন চলে গেলেও দাউদকান্দি উপজেলায় আমি ‘ধর্ম ব্যবসা’ করতে দিব না।

মেজর মোহাম্মদ আলীর ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে জানা গেছে. তার ওয়াজ-মাহফিল নিষিদ্ধের ঘোষণার ব্যাপারটির সাথে দ্বিমত পোষণ করায় উপজেলার আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতিকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত এবং আইনের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে।

 

Share This Post