Spread the love

তুরস্কে আবারও ফিরে আসবে উসমানী খেলাফত,আরতুগ্রুল (উসমানীয় তুর্কি: ارطغرل; ১১৯১/১১৯৮, আহলাত – ১২৮১, সুগুত) যিনি আরতুগ্রুল গাজি নামে পরিচিত ছিলেন। উসমানীয় সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা সুলতান উসমান গাজী খানের পিতা। তিনি অর্ঘুজ তুর্কিদের কায়ি গোত্রের নেতা ছিলেন। বাইজেন্টাইনদের বিরুদ্ধে রোমের সেলজুকদের সাহায্যার্থে আর্তুরুল মার্ভ‌ থেকে আনাতোলিয়ায় আসেন।

[২] এ সময় তিনি বেশ কিছু ধারাবাহিক ঘটনার মাধ্যমে তিনি উসমানীয় সাম্রাজ্য সৃষ্টিতে নেতৃত্ব দেন। তার ছেলে সুলতান উসমান গাজী খান এবং ভবিষ্যৎ বংশধরদের মত তাকেও গাজী উপাধিতে সম্বোধন করা হয়[৩], যা দ্বারা ইসলামের জন্য লড়াই করা বীর যোদ্ধাদের বোঝায়।নেতৃত্ব দিবে মুসলিম বিশ্বের এমন বুক ভরা আসা নিয়ে বিশ্বের আনাচে-কানাচে চেয়ে আছে নির্যাতিত নিপিড়ীত ক্ষুদার্ত মজলুম মুসলিম সসম্প্রদায়, এরেদোয়ানের হাত ধরে তুরস্কে ফিরে আসবে উসমানীয় সেই খেলাফত,

সেই দিকেই এগিয়ে যাচ্ছে এরদোয়ানের নেতৃত্বাধীন তুরস্ক সরকার, যেখানেই নির্যাতিক্ষুধার্ত মানুষ সেই তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান।একের পর এক বিজয় অর্জন অনুপ্রাণিত কর তুলছে মুসলমানদের, শিক্ষাখাতে ব্যাপক ইসলামিক শিক্ষার অগ্রগতি, কুরআনে হাফেজ থেকে শুরু করে আজ সারাবিশ্বে বিজ্ঞান বিভাগেও ব্যাপক সাফল্য অর্জন করেছে তুরস্কের বিজ্ঞানীরা, শুধু তাই নয় ইতিমধ্যে তৈরি করে ফেলেছে যুদ্ধবিমান সহ অত্যাধুনিক চমক লাগানো সব ড্রোন, ফুলের মতো ফুটে উঠছে তুরস্কের তরুণ প্রজন্ম। তুর্কীর ভবিষ্যত খুবই উজ্জ্বল, ফজরের নামাজে হাজির হয়ে ঝাঁকে ঝাঁকে কিশোর।তুরস্কের প্রতিটি মসজিদে ফজরের নামাজে হাজির হয় ঝাঁকে ঝাঁকে তরুন কিশোররা, তাই ধরেই নেওয়া যায় তুর্কীর ভবিষ্যত খুবই উজ্জ্বল, বিশ্ব আজ স্বপ্ন দেখে একজন সুলতান সালাউদ্দিন আইয়ুবীর মত একজন বীর পুরুষ,

যা আজ কিছুটা হলেও দেখা যায় সুলতান রিসেপ তাইয়্যেব এরদোগানের মাঝে, এরদোগান হাত ধরেই মুসলিম বিশ্ব ইহুদিদের শাসন ব্যবস্থা থেকে স্বাধীন ভাবে মুক্ত আকাশে কালেমার পাতাকা উড়িয়ে উল্লাসে মেতে উঠতে এই আশা আখাংকা মুসলামদের হৃদয়ে বারবার কড়া নেড়ে যায়,।

Share This Post