Spread the love

যেনা-ব্যভিচার ও ধ’র্ষণের মত অপরাধের কঠিন সাজা তথা শরীয়াহ আইনে হওয়া উচিৎ বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী রেজাউল করীম।

তিনি বলেন, ধ’র্ষকদের মৃত্যু’দন্ডের বিধান রেখে জাতীয় সংসদে আইন পাশ একটি ভাল উদ্যোগ। কিন্তু এখন প্রশ্ন হচ্ছে ধর্ষক যখন ক্ষমতাসীন দলের সাথে সংযুক্ত থাকে তখন এই আইনের প্রয়োগ কতটুকু হবে তা চিন্তার বিষয়।
এ ধরণের জঘন্য অপকর্মের সাথে যখন সরকারি দলের লোকজন সংযুক্ত থাকে তখন আইন যতো কড়াকড়ি হোক না কেন তার বাস্তবায়ন নিয়ে দুশ্চিন্তা জনগণের মাঝে থেকেই যায়। আমরা আশা করবো এই আইনের যথাযথ প্রয়োগ হবে এবং ধর্ষণের অভিশাপ থেকে আমাদেরকে মুক্ত হতে হবে।

সোমবার এক বিবৃতিতে চরমোনাই পীর বলেন, ধর্ষণ, গুম, খুন ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপকর্মের ফলে করোনা মহামারির চেয়েও নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ অভিশাপ হয়ে দাড়িয়েছে।
সরকারের লোকজন গুম, খুন ও ধ’র্ষণের মহোৎসবে মেতে ওঠে জাতিকে কলঙ্কিত করেছে। ধর্ষণের সেঞ্চুরি উদযাপন করে ছাত্রলীগ এখন সারাদেশে ধ’র্ষণের মহারাজ্য তৈরি করেছে।

Share This Post