Spread the love

টুপি-পাঞ্জাবি পরা ভারতের তামিল নায়ক রাম চরণ দুই হাত তুলে ইসলামি কায়দায় দোয়া করছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কয়েকদিন ধরে অনেকের টাইমলাইনে দেখা যাচ্ছে ছবিটি।

এটি শেয়ার করে অনেকে ক্যাপশনে লিখছে— ‘পবিত্র রমজান মাসে তামিল নায়ক রাম চরণের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ’। এমনকি বাংলাদেশের কিছু গণমাধ্যমেও এই নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।

কিন্তু ফ্যাক্ট চেক (তথ্য যাচাই) করে দেখা যাচ্ছে, তিনি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেননি। ভাইরাল হওয়া ছবিটি ১০ বছর আগের একটি দরগায় তুলা। সম্প্রতি ফেসবুকে পুরাতন ছবিগুলো ভাইরাল হলে অনেকে বিভ্রান্ত হন।

বাংলাদেশের ন-দ অক্ষরের স্বনামধন্য দৈনিক সংবাদপত্রের অনলাইনে বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে লেখা হয়েছে— “ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন বলিউডের অনেক তারকা। এবার এই কাতারে সামিল হলেন তামিল নায়ক রাম চরণ।

সামাজিক যোগাযোগ’মাধ্যমে ভাইরাল ছবিতে দেখা যায় রাম চরণ সাদা রঙের টুপি পরে কোনো একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে দোয়া ধরেছেন। তাকে ঘিরে আছেন তার অনুসারীরা।

এ বিষয়ে তথ্য যাচাই-বাছাই করে দেখা গেছে, খবরটি সম্পূর্ণ ভুয়া।
রাম চরনের দোয়া করার দৃশ্য সম্বলিত যে ছবির কথা উল্লেখ করা হয়েছে এবং অন্যান্য অনলাইন পোর্টালগুলো তার টুপি-পাঞ্জাবি পরা অবস্থার যে কয়েকটি ছবি প্রকাশ করেছে সেগুলো ২০০৯ সালের।

নিয়মিত বলিউডের খবরা’খবর প্রকাশ করা ভারতীয় একাধিক ওয়েবসাইট থেকে জানা যাচ্ছে, ২০০৯ সালের জুলাই মাসে তার অভিনীত ফিল্ম মাগাধেরা এর মুক্তির আগে রাম চরণ অন্ধ্র প্রদেশের আমীন পীর দরগা পরিদর্শনে যান।

ফিল্ম মুক্তির আগে এই দরগাসহ অন্যান্য পীর-আউলিয়াদের মাজার বা দরগা পরিদর্শনে যাওয়ার রেওয়াজ ভারতীয় অভিনেতা/অভিনেত্রীদের মধ্যে রয়েছে।

২০০৯ সালের একাধিক খবরে রাম চরনের আমীন পীর দরগায় ভ্রমণের তথ্য পাওয়া গেলেও সেসব প্রতিবেদনে সাথে ছবি ছিল না। ২০১০-এ কয়েকটি ব্লগে দরগা ভ্রমণের বেশ কিছু ছবি প্রকাশিত হয়।

প্রসঙ্গত, ২০০৯ সালে এভাবে পীরের দরগায় গিয়ে দোয়া করলেও রাম চরন নিজে ইসলাম গ্রহণ করেছেন বলে গত ১০ বছরে কোথাও কোনো খবর দেখা যায়নি, বা তিনিও এমন কিছু বলেননি।

 

Share This Post