Spread the love

মুসলিমদের ক্বিবলা পবিত্রতম ধর্মীয় স্থান কাবা শরীফকে অপমান করায় তুরস্কের কর্তৃপক্ষ দেশটির শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচজন শিক্ষার্থীকে গ্রেপ্তার করেছে।

তারা একটি চিত্রকর্মের মাধ্যমে এলজিবিটি প্রতীকের সঙ্গে মসজিদের ছবি তুলে ধরেছে।

ইস্তাম্বুলের গভর্নর অফিস জানিয়েছে, সৌদি আরবের মক্কায় অবস্থিত গ্রেট মসজিদের সঙ্গে বেশ কয়েকটি এলজিবিটি গোষ্ঠীর পতাকা এঁকেছে শিক্ষার্থীরা। এটা ‘ধর্মীয় বিশ্বাসকে পরিহাস’ করে একটি ‘নোংরা হামলা’ বলে মন্তব্য করেছে ইস্তাম্বুলের গর্ভনর অফিস।

প্রেসিডেন্ট রজব তায়্যিব এরদোগানের প্রধান উপদেষ্টা ইব্রাহিম কালিন বলেছেন, এই চিত্রকর্মের পক্ষে কোনও যুক্তি দাঁড় করানোর সুযোগ নেই। যারা এর সঙ্গে জড়িত ‘তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা’ হবে।

ওই পাঁচ শিক্ষার্থীকে গ্রেপ্তারের পর তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেমান সৌলু টুইট করে বলেছেন, মহান কাবাকে অপমান করায় এলজিবিটি বিকারগ্রস্তদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পোস্টারে কাবার সঙ্গে এলজিবিটি, সমকামী, ট্রান্সজেন্ডার এবং অ্যাসসেক্সুয়েল গোষ্ঠীর পতাকাসহ মধ্যপ্রাচ্যের লোককাহিনীতে পাওয়া অর্ধ-নারী এবং অর্ধ-সাপের একটি পৌরাণিক প্রাণী ছবি প্রতিস্থাপন করা হয়েছিল। এর নিচে লেখা হয়, প্রথাগত লিঙ্গ ভূমিকা নিয়ে সমালোচনা করতে এই চিত্রকর্ম।

ইস্তাম্বুলের গভর্নর অফিস জানিয়েছে, গ্রেপ্তারকৃত পাঁচজনের মধ্যে একজনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। দুজনকে গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে এবং দুজনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আরও দুজন সন্দেহভাজনকে খোঁজা হচ্ছে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

উল্লেখ্য, তুরস্কের ইস্তাম্বুলের সম্মানজনক বোগাজিচি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সরকারপন্থী একজন নতুন রেক্টর নিয়োগের পর গত ৪ জানুয়ারি থেকে বিক্ষোভ করছে। সেখানেই একদল শিক্ষার্থী ওই পোস্টার প্রদর্শন করে।

Share This Post