Spread the love

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে ননদের ছেলের ধ’র্ষণে কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছেন আপন মামি।
এ ঘটনায় মামলা হওয়ায় অভিযুক্ত নাজমুল আলম সোহানকে মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) আটক করে পু’লিশ। পরে তাকে ওই মামলায় গ্রে’প্তার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়।

গ্রে’প্তার নাজমুল আলম সোহান সোনাইমুড়ী উপজেলার কাইয়া গ্রামের প্রবাসী মো. মোরশেদ আলমের ছেলে। সে মায়ের সঙ্গে চৌমুহনী পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের হাজীপুরে বসবাস করতো।

সন্তানের পিতার পরিচয় না পেয়ে আজ মঙ্গলবার সকালে এক মাস বয়সী সন্তানকে কোলে নিয়ে থানায় হাজির হয়েছেন তিনি।

ভুক্তভোগী নারী জানান, ২০১৯ সালের ৪ ডিসেম্বর চৌমুহনী পৌরসভায় ননদের বাসায় বেড়াতে যান। ওইদিন তাকে বাসায় একা পেয়ে ধ’র্ষণ করে ননদের ছেলে সোহান।
এতে তিনি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। চলতি বছরের অক্টোবরে তার একটি কন্যা সন্তান জন্ম নেয়। এরপর ওই শিশুর পিতৃত্ব দাবি করে তিনি সোহানের বাড়িতে যান। কিন্তু সোহান তার দাবি অস্বীকার করে। মঙ্গলবার সকালে বাধ্য হয়ে শিশু সন্তানকে কোলে নিয়েই থানায় হাজির হন ওই নারী।

বেগমগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রুহুল আমিন জানান, অভিযুক্ত নাজমুল আলম সোহান ওই নারী ননদের ছেলে। মৌখিক অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার দুপুরে তাকে চৌমুহনী পৌরসভার বাড়ি থেকে আ’টক করা হয়েছে।
পরে তার বিরুদ্ধে মামলা করেন ভুক্তভোগী নারী। সেই মামলায় সোহানকে গ্রে’প্তার দেখিয়ে আদালতে হাজির করা হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

 

Share This Post