বগুড়ার আদমদীঘিতে রেললাইনের পাশ থেকে এক যুবককে উদ্ধার করেছে পুলিশ। বস্তাটি নড়াচড়া করতে দেখে পুলিশে খবর দেন পথচারীরা।

রোববার সকালে উপজেলার সান্তাহার পৌর শহরের লকু কলোনির খেলার মাঠ এলাকায় রেললাইনের পাশ থেকে ওই যুবককে উদ্ধার করা হয়।

আহত যুবকের নাম সিরাজুল ইসলাম সুমন। তিনি নীলফামারীর ঝোপাচুড়ি গ্রামের বাবুল ইসলামের ছেলে।

সান্তাহার পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক আরিফুল ইসলাম জানান, সকালে লকু কলোনির খেলার মাঠ এলাকায় একটি বস্তা নড়াচড়া করতে দেখে পুলিশে খবর দেন পথচারীরা। পরে বস্তার ভেতরে প্লাস্টিকের রশি দিয়ে হাত-পা বাঁধা ও মুখে স্কচটেপ পেঁচানো ওই যুবককে উদ্ধার করা হয়। তাকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আরিফুল জানান, সুমন কয়েক বছর আগে নওগাঁর কির্ত্তিপুরের শালুকা গ্রামে বিয়ে করেছিলেন। স্ত্রী রিনা বেগমের সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় পাঁচ-ছয় মাস আগে তাদের বিচ্ছেদ হয়। এরপর রিনা বেগম অন্যত্র বিয়ে করেন। তবু সুমনের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতেন তিনি।

তিনি আরো জানান, ২৮ মে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন সুমন। এরপর বিভিন্ন স্থানে খুঁজেও স্বজনরা তার সন্ধান পাননি। একপর্যায়ে রোববার সকালে লকু কলোনির খেলার মাঠ এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

Share This Post