Spread the love

ভারতের উত্তর প্রদেশে লাভ জিহাদ নামে আখ্যায়িত বা বৈবাহিক সূত্রে ধর্ম পরিবর্তন করে ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত হওয়াকে বে-আইনী দাবি করে আইন প্রণয়ন করেছে উগ্র হিন্দুত্ববাদী বিজেপির যোগী আদিত্যনাথের উত্তর প্রদেশের মন্ত্রীসভা।

বুধবার (২৫ নভেম্বর) উত্তর প্রদেশের মন্ত্রীসভা এই সংক্রান্ত একটি বিলের অনুমোদন দেয়।

উত্তর প্রদেশের উগ্র হিন্দুত্ববাদী বিজেপির রাজ্য সরকারের মুখপাত্র সিদ্ধার্থ নাথ সিংয়ের এই ব্যাপারে সংবাদমাধ্যমকে জানান, বিবাহের উদ্দেশ্যে ধর্ম পরিবর্তন করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করা আইন বিরুদ্ধ কার্যকলাপের অন্তর্ভুক্ত হওয়ার ব্যাপারে অনুমোদন দিয়েছে রাজ্য সরকারের মন্ত্রিসভা। তাই, এখন থেকে আইনের আওতায় বিবাহের উদ্দেশ্যে ধর্ম পরিবর্তন করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করা দণ্ডনীয় অপরাধের অন্তর্ভুক্ত হবে।

তিনি আরো বলেন, লাভ জিহাদ বিরোধী আইনের আওতায় বিবাহের উদ্দেশ্যে ধর্ম পরিবর্তনের অপরাধে অপরাধীদের সর্বোচ্চ ৩ থেকে ১০ বছরের কারাদণ্ড এবং ১৫ থেকে ৫০ হাজার পর্যন্ত অর্থদণ্ড হতে পারে।

এছাড়াও আইন প্রণয়নের ফলে যেকোনো ধর্মের ধর্মগুরুদের এখন থেকে ধর্ম পরিবর্তন করানোর সময় ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেটের কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে। এমনকি ধর্ম পরিবর্তনে আগ্রহীরাও জেলা প্রশাসকের কাছ থেকে অনুমতি সাপেক্ষে নিজ ধর্ম পরিবর্তন করতে সক্ষম হবেন। আইনী প্রক্রিয়ায় অনুমোদিতদের ধর্ম পরিবর্তন বৈধ সাব্যস্ত হবে। পক্ষান্তরে যাদের ধর্ম পরিবর্তন আইনী প্রক্রিয়ায় হবে না তাদেরকে দোষী সাব্যস্ত করা হবে এবং ধর্ম পরিবর্তনকারী ও পরিবর্তনে সাহায্যকারী উভয়কেই লাভ জিহাদ বিরোধী আইন মোতাবেক শাস্তি দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, লাভ জিহাদ এটি মুসলমানদের বিরুদ্ধে উগ্র হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোর একটি পরিকল্পিত অপবাদ এবং ভয়ংকর ষড়যন্ত্রের একটি অংশ। মুসলিমদের বিরুদ্ধে হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসী সংগঠনগুলো এই অপপ্রচার চালাচ্ছে যে, মুসলিম ছেলেরা হিন্দু মেয়েদেরকে তাদের প্রেমের জালে বন্দি করে তাদের ধর্ম পরিবর্তন করতে বাধ্য করে তারপর তাকে বিয়ে করে নেয়।

উগ্রপন্থী হিন্দুরা মুসলিমদের বিরুদ্ধে তাদের এই অপপ্রচারকে আরো জঘন্য রূপ দিতে মিডিয়াগুলোতে প্রচার করে বেড়াচ্ছে যে, বিবাহের ফাঁদে ফেলে ধর্ম পরিবর্তন করানো হল মুসলমানদের লাভ জিহাদ নামে বিশ্বব্যাপী মুসলিম ষড়যন্ত্রের একটি অংশ!

Share This Post