Spread the love

করোনা মোকাবিলায় বিশ্বজুড়ে চলছে টিকাদান কর্মসূচি। কিন্তু টিকা দেয়া ও নেয়া নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে নানা জটিলতাও রয়েছে। এই দ্বিধাদ্বন্দ্ব দূর করতে যুক্তরাজ্যে নেয়া হয়েছে এক দারুণ পদক্ষেপ, ব্রিটেনের বেশ কিছু মসজিদে ভ্যাকসিন প্রয়োগের কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। এমন উদ্যোগে সন্তুষ্টি প্রকাশ করছেন মুসলিমরা।

কোভিডের টিকা হালাল কিনা এ নিয়ে প্রশ্ন জাগে ৬০ বছর বয়সী ব্রিটিশ নাগরিক শেহনাজ সাজানের। কিন্তু তার ধারণা ভুল পরবর্তীতে বুঝতে পারেন। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরাকে শেহনাজ বলেন, ‘কোভিড ভ্যাকসিনের বিষয়ে অনেক পর্যালোচনা করে দেখেছি। মসজিদ ছাড়াও বিভিন্ন জায়গা থেকে আমি দিক নির্দেশনা পেয়েছি, এই টিকা হালাল এবং ব্যবহারযোগ্য। মসজিদের মতো পবিত্রস্থানে টিকা নেয়া দারুণ অনুভূতি।’

গত জানুয়ারি ২১ তারিখ থেকে ব্রিটেনের বার্মিংহামে শেহজানের মতো আরও একাধিক মানুষ অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নিয়েছেন। যুক্তরাজ্যের জনসংখ্যার এক কোটি ২০ লাখ মানুষ ইতিমধ্যে টিকার প্রথম ডোজ সম্পন্ন করেছেন।

টিকা শুধু হাসপাতাল বা নির্দিষ্টস্থানেই দেওয়া হচ্ছে না। সব শ্রেণির মানুষের কথা মাথায় রেখেই সিনেমা হল, লন্ডনের ফুটবলের মাঠ এমনকি মন্দিরেও টিকাদান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। এমন উদ্যোগে প্রশংসা কুঁড়াচ্ছে ব্রিটেনের জাতীয় স্বাস্থ্য সেবার সঙ্গে যুক্ত সংশ্লিষ্টরা।

আল-জাজিরা তাদের খবরে বলেছে, স্থানীয় সময় রোববার (০৭ জানুয়ারি) ব্রিটেনের হোয়াইট চ্যাপেল এলাকায় ইস্ট লন্ডন মসজিদে টিকা নিয়েছেন শতাধিক মুসল্লি। অন্যদিকে বার্মিংহামের আল-আব্বাস ইসলামিক সেন্টারেও টিকা দেয়া হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের লক্ষ্য একসঙ্গে দু’জনকে টিকা দেয়া। মসজিদ কমিটিও আশাবাদী সামনে পাঁচ শতাধিক মুসল্লিকে ভ্যাকসিনের আওতায় আনা।

Share This Post