Spread the love

ভাস্কর্যবিরোধী বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার” অভিযোগে খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ও হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার আবেদন আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১০ ডিসেম্বর) ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আসসাম জগলুল হোসেনের আদালতে এ মামলার আবেদন করেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুল মালেক। পরে শুনানি শেষে ওই আবেদন খারিজ করে দেন বিচারক। সম্প্রতি ভাস্কর্য ইস্যুতে এ নিয়ে মামুনুলের বিরুদ্ধে দুটি মামলা এবং তিনটি মামলার আবেদন করা হলো।

এর আগে বুধবার ভাস্কর্যবিরোধী বক্তব্য দেয়ায় ‘রাষ্ট্রদ্রোহের’ অভিযোগ এনে হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী ফয়জুল করীম ও খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ও হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে মানহানির মামলার আবেদন করা হয়।

বুধবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে এ মামলার আবেদন করেন জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এবি সিদ্দিকী।

এ আবেদনে ভাস্কর্যবিরোধী ষড়যন্ত্রের অভিযোগে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বিরুদ্ধেও মানহানি মামলা নেয়ার আবেদন করা হয়েছে।

আদালত এ–সংক্রান্ত বিষয়ে কোনো আদেশ দেননি।

এর আগে জাতির জনকের ভাস্কর্যের বিরোধিতা করে বক্তব্য দেয়ায় ‘রাষ্ট্রদ্রোহের’ অভিযোগ এনে আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী, মুফতী ফয়জুল করীম ও মাওলানা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে দুটি রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা হয়। সোমবারবার মামলা দুটি আমলে নিয়ে আদালত আগামী ৭ জানুয়ারির মধ্যে তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দিতে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দেন।

সোমবার দুপুরে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম সত্যব্রত শিকদারের আদালত এ আদেশ দেন।

Share This Post