Spread the love

বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যখন দেশে উন্নয়নের জোয়ার বইছে, ঠিক সেই সময়ে মামুনুল হকরা ভাস্কর্যের নামে দেশের পরিবেশ অশান্ত করতে উঠেপড়ে লেগেছে বলে মন্তব্য করেছেন ফরিদপুর ৪ আসনের সংসদ সদস্য ও যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মুজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী।

রোববার (২৭ ডিসেম্বর) বিকালে ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে যুবলীগের আয়োজনে জঙ্গিবাদবিরোধী এক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নিক্সন চৌধুরী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাকে আফগানিস্তান, পাকিস্তান হতে দেওয়া যাবে না। কোনও জঙ্গিবাদী কার্যক্রম এদেশে চলবে না। বঙ্গবন্ধু একটি স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিল বলেই আমি আজ এমপি, আপনি বড় অফিসার। সেই দেশে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য হবেই। কেউ ঠেকাতে পারবে না।

হেফাজতে ইসলামের নেতা মামুনুল হকের উদ্দেশে নিক্সন বলেন, আপনি আন্দোলন করেন, রাজনীতি করেন কাদের নিয়ে। আমাদের এতিম বাচ্চাদের নিয়ে। আমরা আমাদের বাচ্চাদের মাদরাসায় পাঠাই কোরআন শিক্ষা নিতে, আর আপনি তাদের নিয়ে রাজনীতি করেন।

এমপি নিক্সন চৌধুরী হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, যখন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে উন্নয়নের জোয়ার বইছে, ঠিক সেই সময়ে মামুনুল হকরা ভাস্কর্যের নামে দেশের পরিবেশ অশান্ত করতে উঠেপড়ে লেগেছে। এর কারণ কী? কারা এর পেছনে? কি তাদের উদ্দেশ্য? তারা পাকিস্তানের টাকায় দেশকে অস্থিতিশীল করছে।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য এদেশে হবেই, পারলে ঠেকাইয়েন। পারবেন তো রাতের অন্ধকারে ঢিল মারতে।

যুবলীগ সম্পর্কে নিক্সন চৌধুরী বলেন, যারা যুবলীগ নিয়ে গ্রুপিং করেন তারা সাবধান হয়ে যান। আপনাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিগত দিনে এমপির সুপারিশ, নেতার সুপারিশ আর টাকার জোরে যুবলীগের পদ পেয়েছেন। আগামীতে আর তা হতে দেয়া হবে না। যুবলীগের পদ পাবে ত্যাগী, ভদ্র, মাদক বিরোধী শিক্ষিত যুবকরা। বিএনপি জামায়াতের কোনও স্থান যুবলীগে হবে না।

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক বিপ্লব মোস্তাফিজ, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী মাজহারুল ইসলাম, যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির অর্থ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ব্যারিস্টার সাজ্জাদ হোসেন, যুবলীগের সদস্য চৈতী বিশ্বাস প্রমুখ।

 

Share This Post