Spread the love

যৌতুন না পেয়ে কাকলী আক্তার (২০) নামে এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছেন স্বামী শাহ পরান (২৫)। কাকলী আক্তার ময়মনসিংহের তারাকান্দায় উপজেলার কামারগাঁও ইউনিয়নের হরিয়াতলা গ্রামের মৃত আবুল বাশারের মেয়ে।

‘মাথা ন্যাড়া করার পর বাড়িতে তিনদিন আটকে রাখেন স্বামী শাহ পরান। আটক থাকার তিনদিন পর সুযোগ পেয়ে কাকলি পালিয়ে বাবার বাড়ি চলে যান। এরপর পরিবারের লোকজনকে নিয়ে বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে তারাকান্দা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।’

তারাকান্দা থানার ওসি আবুল খায়ের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘প্রায় ১০ মাস আগে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় তাদের। বিয়ের তিন মাস পর গর্ভবতী হন কাকলি আক্তার। এরপর থেকে যৌতুকের জন্য তার ওপর নির্যাতন শুরু হয়। এ অবস্থায় গত ২৯ জানুয়ারি সন্তান নষ্ট করার জন্য তাকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান শাহ পরান। কাকলী সন্তান নষ্ট করতে রাজি না হওয়ায় বাড়িতে তার ওপর শারীরিক নির্যাতন শুরু হয়। এক পর্যায়ে কাকলীর মাথার চুল কেটে দেন শাহ পরান।’

ওসি আরও বলেন, ‘অভিযোগ দেয়ার পর পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় এখনো কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে, জানতে পেরেছি দুই পক্ষই বিষয়টি মীমাংসা করার চেষ্টা করছে।’

Share This Post