Spread the love

ঝিনাইদহের শৈলকূপা উপজেলায় রাতভর নির্যা”তনের পর এক নারীকে গলা কে”টে হ’ত্যা’র চেষ্টা করা হয়েছে। এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বুধবার (২০ জানুয়ারি) সকালে উপজেলার আওশিয়া গ্রামের জাকির হোসেন নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে গলাকাটা অবস্থায় আশ্রয় নেন।;

সূত্র জানায়, জাকির ওই নারীকে গলায় র”ক্তাক্ত ওড়না পেঁচানো অবস্থায় দেখতে পান। ওই সময় তিনি কোনো কথা বলতে পারছিলেন না। পরে পুলিশকে জানালে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে শৈলকূপা উপজেলা স্বা,স্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠালে কর্তব্যরত চিকি’ৎসক তাকে ফরিদপুর মেডি’কেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে। 

আহত নারীর পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মাগুরা জেলার শ্রীপুর উপজেলার চন্ডিখালি গ্রামের মৃ’ত শাহাদত হোসেনের ছেলে হুসাইনের সঙ্গে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরিচয় থেকে প্রেম হয় তার। বিভিন্ন সময়ে হুসাইন তাকে বাড়ি থেকে বেড়াতে নিয়ে যেত। মঙ্গলবার এশার আজানের সময় ওই নারীর দুলাভাই হরিহরা গ্রামের রাব্বুলের বাড়ি থেকে তাকে আউশিয়া গ্রামে নিয়ে যান হুসাইন। পরে সকালে তারা জানতে পারেন যে ওই নারীকে পুলিশ আহত অবস্থায় উদ্ধার করেছে। তার গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন ও কানের দুল পাওয়া যায়নি। হুসাইন আউশিয়া গ্রামের আব্দুল গফুরের জামাতা।

আ’হত নারীর দুলাভাই রাব্বুল অভিযোগ করেন, ওই নারীকে রাতভর নি’র্যাত’নের পর হ’ত্যার চেষ্টা ক’রা ; হয়েছে।

শৈলকূপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তদন্ত মোহসিন হোসেন জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে এবং সেখান থেকে একটি রক্ত”মাখা চাকু উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share This Post