Spread the love

কলকাতার উচ্চ আদালত বলেছেন, নিজের পছন্দে বিয়ে ও স্বেচ্ছায় ধর্ম পরিবর্তন করতে পারবেন। এতে কেউ হস্তক্ষেপ করতে পারবেন না।

ভিন্নধর্মের একজনকে বিয়ে করার পর মেয়ের বাবা আদালতে একটি পিটিশন দায়ের করেন।

মামলায় বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্য়োপাধ্য়ায় ও বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্য়োপাধ্য়ায়ের ডিভিশন বেঞ্চ জানায়, যদি কোনো প্রাপ্তবয়স্ক নিজের পছন্দে বিয়ে করেন ও স্বেচ্ছায় ধর্ম পরিবর্তন করেন এবং বাবার বাড়িতে না ফেরেন, সেক্ষেত্রে কেউ হস্তক্ষেপ করতে পারেন না।

বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছে, বাবার সন্দেহের ভিত্তিতে ২৩ ডিসেম্বর অতিরিক্ত সরকারি আইনজীবী শৈবাল বাপুলির সঙ্গে তার চেম্বারে দেখা করবেন তরুণী।

এতে আরও বলা হয়, আইনজীবীর সঙ্গে তরুণীর সাক্ষাতের সময় অন্য কেউ সেখানে থাকবেন না। এমনকি, তার স্বামীও নন। আদালতে সংক্ষিপ্ত রিপোর্ট জমা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ২৪ ডিসেম্বর।

১৯ বছরের এক তরুনী ভিন্নধর্মের এক ব্যক্তিকে বিয়ে করেন। এ নিয়ে হাইকোর্টে পিটিশন দায়ের করেন মেয়েটির বাবা।

বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে তরুণীকে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে পেশ করে পুলিশ। জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে জবানবন্দিতে তরুণী জানান, তিনি নিজের ইচ্ছেয় বিয়ে করেছেন।

সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

Share This Post