Spread the love

আলহামদুলিল্লাহ। মনোজিৎ কুমার আজ থেকে মুসলিম হিসেবে মোঃ নিরব খাঁন নামে পরিচিত হবেন।নীরব খাঁন ভাই আজকে কোর্টের মাধ্যমে হলফনামায় স্বাক্ষর করে নিজেকে মুসলিমের অন্তর্ভুক্ত করেছেন, আলহামদুলিল্লাহ। সকলের কাছে দোয়া চাই নতুন মুসলিম ভাইটির জন্য আপনি_কার_সঙ্গী_হবেন ?

সায়্যিদুনা হযরত আনাস (রা.) বর্ণনা করেন, এক সাহাবী রাসূল (ﷺ)’র কাছে আরজ করলেন, কেয়ামত কখন হবে ? রাসূল (ﷺ) বললেন, তুমি কেয়ামতের জন্য কি প্রস্তুত করেছো ? সাহাবী বললেন, আমার তেমন কোন কিছুই নেই, তবে আমি আল্লাহ এবং তাঁর রাসূল (ﷺ)-কে ভালোবাসি। তখন রাসূল (ﷺ) বললেন, যাঁকে তুমি ভালোবাসো তাঁর সাথেই তুমি থাকবে।

সায়্যিদুনা আনাস (রা.) বলেন, ইসলাম গ্ৰহণ করার পর রাসূল (ﷺ)’র এই মোবারক বাণী ছাড়া অন্য কোন কিছুতে এতটা আনন্দিত হয়নি, যতটা এই পবিত্র বাণী শুনে হয়েছি।

সায়্যিদুনা আনাস (রা.) আরো বলেন, সুতরাং আমি আল্লাহ এবং তাঁর রাসূল (ﷺ), হযরত আবু বকর (রা.) এবং হযরত ওমর (রা.)-কে ভালোবাসি আর আমি আশা রাখি যে, তাঁদের সাথেই আমি থাকবো। যদিও আমি তাঁদের (হযরত আবু বকর ও ওমর রা.) সমতুল্য আমল করতে পারিনি।

{রেফারেন্স: সহীহ মুসলিম শরীফ, ৪/২০৩২ পৃ:, ইমাম বুখারী, আস-সহীহ, ৫/১২ পৃ:, হা/৩৬৮৮, খতিব তিবরিযি, মিশকাত, ৩/১৩৯৫ পৃ:, হা/৫০০৯, তাবরানী, মা’জামুল আওসাত, হা/১৫২৭, মুসনাদে আহমদ, ১৯/১৩১ পৃ:, হা/১২০৭৫}

(এছাড়া আরো অনেক কিতাবে এই হাদিসটি উল্লেখ করা হয়েছে) এই হাদিসটি থেকে স্পষ্ট বুঝা যায় যে, দুনিয়াতে যারা আল্লাহর প্রিয় রাসূল (ﷺ) ও আল্লাহর প্রিয় অলিদেরকে ভালোবাসবেন, তারা প্রিয় নবীজি (ﷺ) ও আল্লাহর অলিদের সাথে জান্নাতে থাকবেন।

আর বিপরীতে যারা প্রিয় রাসূল (ﷺ) ও আল্লাহর প্রিয় অলিদের সাথে দুশমনি রাখবেন, তারা আবু জেহেল, আবু লাহাব ও যুগে যুগে আসা তাদের অনুসারীদের সঙ্গে সঙ্গী হয়ে চিরকাল জাহান্নামে থাকবেন যে ব্যক্তি নবীজি (ﷺ)’র আশেক, সে ব্যক্তি কখনো নবীজিকে ভালোবাসতে দলিল খুঁজবে না কারণ, ভালোবাসতে এবং ভালোবাসা প্রকাশ করতে কোন দলিলের প্রয়োজন হয় না।

অমর ভালোবাসাই একটি দলিল। যেমন, সিদ্দিক আকবর (রা.), হযরত ওমর (রা.) ও হযরত ওয়াইস ক্বারনি (রা.) তাঁরা ভালোবাসতে এবং ভালোবাসা প্রকাশ করতে, এখনকার মানুষের মতো দলিল খুঁজেননি।

তাই তো তাঁদের অতুলনীয় ভালোবাসা কেয়ামত পর্যন্ত মানুষের জন্যে দলিল হয়ে থাকবে। আল্লাহ আমাদের সবাইকে হেদায়েত দান করুন। আমিন

Share This Post