বগুড়ার মাত্র ৪০ দিনে পবিত্র কোরআনে হাফেজ হয়েছে নয় বছরের এক শিশু। বড় কুমিড়া গ্রামের এ শিশুর নাম মুহাম্মদ সাদিক নূর আলম। সাদিক প্রতিদিন ১৫ পৃষ্ঠা কোরআন মুখস্ত করে ৩০ পারা কোরআনে হাফেজ হয়েছে।এর আগে সাদিক পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়াশুনা করেছিল।

জানা গেছে, বাবা মো. আতাউর রহমান সাজুর ইচ্ছায় কোরআনে হাফেজ হতে স্কুল ছেড়ে বগুড়ার গোদার পাড়া মাদ্রাসাতুল উলুমিশ শারইয়্যাহতে ভর্তি হয়েছিল সাদিক। ছেলের অর্জন প্রসঙ্গে আতাউর রহমান বলেন, আল্লাহ তায়ালার কাছে আমি কৃতজ্ঞ।

তিনি এতো বড় এক সন্তান আমাকে দান করেছেন। সাদিক জানায়, প্রথম দিকে কোরআন পাঠ করতে কিছুটা কষ্ট হয়েছে।

পরে আস্তে আস্তে আয়ত্ত হয়ে যায়। আমার বা শিক্ষকের চেষ্টায় এটি সম্ভব হয়নি। এটি মহান আল্লাহ তায়ালার ইচ্ছাতেই হয়েছে। প্রসঙ্গত, সবচেয়ে কম বয়সে আলজেরিয়ার আবদুর রহমান ফারাহ কোরআনে হাফেজ হওয়ার গৌরব অর্জন করে।

মাত্র ৩ বছর বয়সে এ অর্জন করেছিল। বগুড়ার নয় বছরের এক শিশু মাত্র ৪০ দিনে পবিত্র কোরআনে হাফেজ হয়েছে। বড় কুমিড়া গ্রামের এ শিশুর নাম মুহাম্মদ সাদিক নূর আলম।

Share This Post